7 December 2022

NEWSCOPE

"Open to all, but Influenced by None"

হিন্দুত্বের দোহাই দিয়ে প্রবীণ মুসলমানকে মারধর দিল্লির গাজিয়াবাদে

Newscope Desk- গত ৫ জুন উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদ জেলার লোনিতে নামাজ পড়তে যাওয়ার পথে একটি প্রবীণ মুসলিম ব্যক্তিকে নির্যাতন করা হয়।

হামলাকারীরা একটি অটোরিকশা থেকে আব্দুল সামাদকে অপহরণ করে নিকটবর্তী জঙ্গলের একটি ঝুপড়িতে টেনে নিয়ে যায়। সেখানে তারা ‘জয় শ্রী রাম’ ও ‘বন্দে মাতরম’ বলে চিৎকার করতে থাকে। তাকে কাঠের লাঠি দিয়ে মারধর শুরু করে।

তারা সামাদকে পাকিস্তানি গুপ্তচর বলেও দাবি করে।

এই জঘন্য ঘটনার একটি ভিডিও অনলাইনে প্রচার করা হয়। যাতে মিঃ সামাদকে আক্রমণকারীরা মারধর করছে দেখা যায়।

ভিডিওটিতে কমপক্ষে আরও দুজন যুবক মিঃ সামাদকে আক্রমণ করছে – একজন কালো শার্ট এবং লাল ট্রাউজার পরা এবং অন্যজন হালকা নীল টি-শার্ট এবং ধূসর ট্রাউজারে।

“যখন আমার কাছে লিফট দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছিল তখন আমি যাচ্ছিলাম। পরে তারা আমাকে একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে আমাকে আটকে দেয় এবং মারতে থাকে। তারা আমাকে শ্লোগান দিতে বাধ্য করে। আমার মোবাইল কেড়ে নেওয়া হয়। একটি ছুরি দিয়ে আমার দাড়ি কেটে নিয়েছিল দুষ্কৃতীরা।” বলে জানিয়েছেন আব্দুল সামাদ।

তিনি আরও জানান, “তারা আমাকে অন্য মুসলমানদের উপর হামলার শিকার হওয়ার একটি ভিডিওও দেখিয়েছিল।” তাঁর আক্রমণকারীরা তাকে নিয়ে গর্ব করেছিল যে তারা এর আগেও অনেক মুসলমানকে হত্যা করেছে।

পুলিশ একটি মামলা দায়ের করেছে এবং একজন অভিযুক্ত গুজ্জরকে গ্রেপ্তার করেছে। তাকেই প্রধান আসামি বলে বিশ্বাস করা হচ্ছে। পুলিশ এখনও অন্যদের সন্ধান চালাচ্ছে।

লোনির সিনিয়র পুলিশ অফিসার অতুল কুমার সোনকার জানিয়েছেন, ‘প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ’ নেওয়া হচ্ছে।

>
%d bloggers like this: